Wednesday , July 6 2022

Shivling In Home: বাড়িতে শিবলিঙ্গ রাখলে অবশ্যই মেনে চলুন এই কয়েকটি নিয়ম

Shivling In Home
হিন্দু ধর্মে শিব পুজোর বিশেষ মাহাত্ম্য রয়েছে। শিবের সাকার রূপ হিসেবে শিবলিঙ্গেরই পুজো করা হয়। শিব পুরাণ অনুযায়ী, নিরাকার শিব অগ্নি স্তম্ভ রূপে প্রকট হয়েছিলেন। এই অগ্নি স্তম্ভের আদি বা অন্ত কিছুই ছিল না। শিব পুরাণে একে সমস্ত কারণের কারণ বলা হয়। স্কন্দ পুরাণ অনুযায়ী অনন্ত আকাশ শিবলিঙ্গ ও পৃথিবী তাঁর ভিত্তি। সময় ফুরিয়ে এলে সমস্ত ব্রহ্মাণ্ড ও সমস্ত দেবতা এবং ঈশ্বর শিবলিঙ্গে বিলীন হয়ে যাবে।

লিঙ্গোদ্ভব কথায় বলা হয়েছে যে, শিব নিজেকে অনন্ত ও অনাদি অগ্নি স্তম্ভ রূপে প্রকট করার পর ব্রহ্মা ও বিষ্ণুকে যথাক্রমে নিজের ঊর্ধ্বাংশ ও নিম্নাংশ খুঁজতে বলেন। কিন্তু ব্রহ্মা ও বিষ্ণু শিবের শুরু বা সমাপ্তি খুঁজে পান না।
শিব পুরাণ অনুযায়ী শিবলিঙ্গ অত্যন্ত সংবেদনশীল। কথিত আছে যে, শিবলিঙ্গের সামান্য পুজো করলেই শুভ ফলাফল লাভ করা যায়। বাড়িতে সাধারণত শিবলিঙ্গ রাখা হয় না। তবে জ্যোতিষ মতে, বাড়িতে শিবলিঙ্গের পুজো করলে শিব পুরাণে বর্ণিত কিছু বিশেষ নিয়ম মেনে চলতে হয়।

* প্রতিদিন শিব লিঙ্গের পুজো করা সম্ভব হলে, তবেই বাড়িতে শিবলিঙ্গ স্থাপন করবেন। অন্যথা ভুলেও বাড়িতে শিবলিঙ্গ স্থাপন করবেন না।
* শিব পুরাণ অনুযায়ী বাড়িতে শিবলিঙ্গ রাখলে তাঁর প্রাণ প্রতিষ্ঠা করা উচিত নয়। বরং শিবলিঙ্গ রেখে প্রতিদিন নিয়ম-নীতি মেনে তাঁর পুজো ও অভিষেক করা উচিত।

* শিব পুরাণে এ-ও বলা হয়েছে যে, সম্ভব হলে নর্মদা নদীর পাথর দিয়ে তৈরি শিবলিঙ্গই বাড়িতে রাখা উচিত। নর্মদা নদী থেকে বেরোনো পাথরের শিবলিঙ্গ বাড়িতে রাখলে অধিক শুভ ফলাফল লাভ করা যায়।
* আবার বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠের ওপরের পর্বের উচ্চতার সমান শিবলিঙ্গই বাড়িতে রাখা উচিত। এর চেয়ে বড় বা খুব বেশি বড় শিবলিঙ্গ ঠাকুরঘরে স্থাপন করা উচিত নয়।

* বাড়িতে প্রতিদিন সকাল, সন্ধ্যা শিবলিঙ্গের পুজো করা উচিত। প্রতিদিন এই দুবেলা পুজো করা সম্ভব না-হলে বাড়িতে শিবলিঙ্গ রাখবেন না।
* অন্য দিকে শিব পুরাণে এ-ও বলা হয়েছে যে বাড়িতে একের চেয়ে বেশি শিবলিঙ্গ রাখতে নেই। ঈশান কোন ও উন্মুক্ত স্থানে শিবলিঙ্গ রাখা উচিত।

* বাস্তু শাস্ত্র অনুযায়ী সপ্তাহ অথবা দিনে এক বা দুবার শিবলিঙ্গের জল স্নান পর্যাপ্ত নয়। এ কারণে শিবলিঙ্গে সবসময় জলধারা থাকা উচিত। উল্লেখ্য, শিবলিঙ্গ থেকে প্রতি মুহূর্তে একটি শক্তি নির্গত হয়। এই জলধারা সেই শক্তিকে শান্ত রাখে।
* বাড়িতে ধাতু দিয়ে তৈরি শিবলিঙ্গ রাখতে হলে, সোনা, রুপো বা তামা ব্যবহার করা উচিত। পাশাপাশি সেই ধাতুর একটি নাগও শিবলিঙ্গে রাখবেন। শিবলিঙ্গের পুজো করার সময় কেতকীর ফুল, তুলসী, সিঁদূর এবং হলুদ অর্পণ করতে নেই। আসলে এই সামগ্রীগুলি শিবের অপ্রিয়।

Check Also

জন্মাষ্টমীর দিন এই জিনিসটি অবশ্যই বাড়িতে রাখুন, সুখ ও সম্পদে ভরে উঠবে সংসার

জন্মাষ্টমীর দিন ছাড়া ভারতবর্ষজুড়ে ছোট্ট গোপালের আরাধনা করা হয়। কেউবা পুত্ররূপে আবার কেউবা ভগবান শ্রীকৃষ্ণকে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.