Sunday , July 3 2022

Hindu

বাড়িতে শিবলিঙ্গ থাকলে এই ৬ কাজ এখনই করা বন্ধ করুন

হিন্দুধর্মের অন্যতম প্রধান দেবতা। ব্রহ্মা, বিষ্ণু ও মহেশ্বর নিয়ে যে ত্রিদেব, তার অন্যতম তিনি। মহাদেবের আরাধনা করার জন্য তাঁর ভক্তরা অনেক সময় বাড়িতে শিবলিঙ্গের প্রতিষ্ঠা করেন। শিবলিঙ্গের আরাধনা করে মহাদেবকে তুষ্ট করা যায় বলে হিন্দু ধর্মের বিশ্বাস। এমনিতে মনে করা হয় যে শিব ঠাকুর খুব অল্পে তুষ্ট। তবে জেনে রাখুন ...

Read More »

শিবের পুজোয় ভুলেও করতে নেই শঙ্খের ব্যবহার, জানেন কেন?

হিন্দু ধর্মে শঙ্খ গুরুত্বপূর্ণ স্থান অধিকার করে থাকে। শঙ্খকে অত্যন্ত শুভ মনে করা হয়। পাশাপাশি হিন্দু শাস্ত্রে বিভিন্ন ধরনের শঙ্খের উল্লেখ পাওয়া যায়। যার ব্যবহারও ভিন্ন ভিন্ন ও এর প্রতিটিই শুভ ফলদায়ী। শঙ্খ বিষ্ণুর অত্যন্ত প্রিয়। বিষ্ণুর পুজোয় শঙ্খ ব্যবহার করা হয়। এমনকি অনেক পূজার্চনায় শঙ্খ ব্যবহৃত হয় ও শঙ্খধ্বনিও ...

Read More »

দিনের কোন বিশেষ সময় প্রার্থনায় যা চাওয়া যায় তাই মেলে?

ভগবান কি মানুষের মনের কথা শোনেন? যুক্তির সিঁড়িতে এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গেলে বেজায় ঝামেলা। তর্কও বিস্তর। তবে সব তর্কের পরে যা পড়ে থাকে তা হল বিশ্বাস। সেই বিশ্বাসে ভর করে আজও মানুষ দেবতার স্থানে মাথা ঠেকান। বিপদে-আপদে ভগবানের শরণ নেন। আসলে বিরাট কোনও শক্তির কাছে নিজেকে সমর্পণ করে হয়তো ...

Read More »

হিন্দু শাস্ত্র মতে বিয়েতে কেন সাত পাকে ঘুরতে হয় জানেন?

বিয়ে মানেই এক পবিত্র সম্পর্ক। নারী ও পুরুষের আত্মার মিলন। এমন প্রচুর ভারী ভারী শব্দ বাড়ির বড়রা বলে থাকেন। আদতে কোনও যুবক যুবতির কাছে বিয়ে মানে সম্পর্কের পূর্ণতা ছাড়া কিছু নয়। তর্কের খাতিরে ‘পবিত্র বন্ধন’, ‘আত্মার সম্পর্ক’ এসব মেনে নেওয়া হলেও ‘অত্যাধুনিক’ কিছু মানুষ সাত পাকের প্রতিজ্ঞা মেনে নিতে নারাজ। ...

Read More »

জগন্নাথ দেবের মতোই স্নানযাত্রার আয়োজন মহাতীর্থ কালীঘাটেও

শ্রীক্ষেত্র আর কালীক্ষেত্রের মধ্যে ভৌগলিক দূরত্ব যেমন অনেকখানি, তেমন দুই তীর্থে দুই আরাধ্যের উপাসনা রীতিতেও আছে বেশ ফারাক। যদিও সাধনার পথটুকুই যা আলাদা, অন্তিমে সব পথ এসে মিলে যায় শেষে তাঁর চরণের কাছেই। তবু রীতিনীতি, বিধিবদ্ধ নিয়মাবলিতে কিছু পার্থক্য তো থেকেই যায়। আবার আশ্চর্যভাবে এই দুই পথের রীতির মধ্যেই অপূর্ব ...

Read More »

গণধর্মের গণদেবতা প্রভু জগন্নাথ, স্নানযাত্রা শেষে ভক্তদের দর্শন দেন গজানন রূপে

শ্রীগীতায় জ্ঞানযোগে জগৎগুরু শ্রীকৃষ্ণ শিষ্য অর্জুনকে বলছিলেন- ‘যে যথা মাং প্রপদ্যন্তে, তাংস্তথৈব ভজাম্যহম।’ আক্ষরিক অর্থ পেরিয়ে এ-উক্তির সারার্থ আমাদের জানায়, ভক্ত যেভাবে ভগবানের আরাধনা করেন, ভগবানও ঠিক সেভাবেই তাঁকে কৃপা করেন। এই শ্লোকের পরের অংশটিও প্রণিধানযোগ্য – ‘মম বর্ত্মানুবর্তন্তে মনুষ্যাঃ পার্থ সর্বশঃ’ – অর্থাৎ মানুষ যে-পথ ধরেই তাঁর দিকে যাত্রা ...

Read More »

কোন দেবতা কোন ফুলে তুষ্ট হয় জানেন?

আমরা নিজেদের মঙ্গল কামনায় কোনও না কোনও দেবদেবীর পুজো করে থাকি। কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই জানি না, কোন দেবতা কোন ফুলে সন্তুষ্ট হন বা কোন ফুল পছন্দ করেন। এটা অবশ্যই জেনে রাখা দরকার, কারণ পুরনো অনেক পুঁথিতে এটাই বলা আছে যে দেবতাদের পছন্দের শুধু ফুল নয়, দিন, রং ও খাবার ...

Read More »

সীতার বাবা রাবণ, রামের হাতে বধ হননি লঙ্কাধিপতি! এমন রামায়ণের কথা জানেন?

মহাভারতের একেবারে শুরুতেই কুলপতি মহর্ষি সৌতি জানিয়েছিলেন, মহাভারতের (Mahabharat) কাহিনি এর আগেও অন্যরা বলেছেন। আবার ভবিষ্য়তেও অন্যরা বলবেন। একথা কেবল মহাভারত নয়, রামায়ণের (Ramayana) ক্ষেত্রেও একথা প্রযোজ্য। আসলে মহাকাব্যের বৈশিষ্ট্যই যে তাই। যুগে যুগে দেশকাল তাকে নিজের মতো করে গড়ে তুলবে। এই বিভিন্ন সংস্করণগুলির কথা ভাবতে বসলে সত্য়িই অবাক হতে ...

Read More »

কাশীর এই সাধুরা বেঁচে থাকেন নরমাংস খেয়ে!

দক্ষিণেশ্বরের পাগলা ঠাকুর বলেছিলেন, ঈশ্বরের কাছে পৌঁছবার পথ অনেকগুলো। কেউ যান সদর দরজা দিয়ে। কেউ যান খিড়কি-পথে। কেউ বা আবার বেছে নেন নালা-পথ! তন্ত্রসাধনা, বিশেষ করে সিদ্ধাই মার্গকে রামকৃষ্ণদেব অন্তর্ভুক্ত করেছিলেন এই তৃতীয় শ্রেণির! যে কোনও কারণেই হোক, তন্ত্রপথে ঈশ্বর-সাধনার পদ্ধতি তাঁর মনঃপূত হয়নি! আসলে, তন্ত্রসাধনার পথ এবং পদ্ধতি- দুই ...

Read More »

রোজ উচ্চারণ করুন ‘ওম’, জেনে নিন কেটে যাবে কোন কোন বাধা…

সৃষ্টির আদি শব্দ হিসাবে বিবেচনা করা হয় ‘ওম’ শব্দটিকে। শরীর-মনের বহু ভয়, বাধা, চিন্তাকে সরিয়ে ফেলার শক্তি রয়েছে এই ওম ধ্বনিতে।অনন্ত শক্তির প্রতীক এই শব্দটি। ওম শব্দ ঘিরেই গোটা ব্রহ্মাণ্ড। ব্রাহ্মণ গ্রন্থ বলে, যদি কুশের আসনে বসে পূর্বদিকে মুখ করে এক হাজারবার ওম শব্দটি জপ করা যায়, তবে সবরকম বাধা ...

Read More »