ঘন ঘন কোমর পিঠে-বেথা হচ্ছে পংঙ্গু হতে না চাইলে যা করবেন !

ঘন ঘন পিঠে- ঘন ঘন পিঠে, কোমরে ব্যথা হচ্ছে? যদি এই সমস্যায় পড়ে থাকেন তাহলে খুব তাড়াতাড়িই ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। আপনি ভুগতে পারেন অস্টিওপোরোসিসে। এটি হাড়ের একটি বিশেষ রোগ। পুরুষের চেয়ে নারীরাই এই রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে বেশি। তবে আগে থেকে লক্ষণ জানা থাকলে এই রোগটি প্রতিরোধ করা সম্ভব। অস্টিওপোরোসিসের লক্ষণ: অস্টিওপোরোসিস নিঃশব্দে ক্ষতি করে। তাই প্রথম থেকে লক্ষণ বোঝা মুশকিল। তবুও সব সময় সজাগ থাকুন।

ঘন ঘন পিঠে ব্যথা হলে, পেশীতে যন্ত্রণা হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।দাঁতে ক্ষত হলে কিংবা কম সময়ের ভেতর অস্বাভাবিকভাবে ওজন কমে গেলে সতর্ক হওয়া উচিত। বিশেষ করে শিরদাঁড়ায় আকারগত পরিবর্তন হলে বা ব্যথা হলে দেরি না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।যাদের অস্টিওপোরোসিসের ঝুঁকি বেশি:যাদের বয়স ৪০ এর বেশি তাদের অস্টিওপোরোসিস হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে। বিশেষ করে নারীদের মনোপজের পর শরীর থেকে এস্ট্রোজেন হরমোন কম নিঃসৃত হয়। ফলে হাড় দুর্বল হয়ে পড়ে।

তখন এই অসুখ হবার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।পরিবারের কারও, বিশেষ করে মায়ের যদি এই রোগ থাকে তাহলে এই অসুখ সন্তানদের হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যারা রোদে কম বের হন তাদেরও এই অসুখ হতে পারে। রোগা ও কম উচ্চতার নারীদের শরীরের হাড় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দুর্বল হয়। ফলে অস্টিওপোরোসিস হবার সম্ভাবনাও বেশি থাকে।যারা ক্যাফেইন বা অ্যালকোহল গ্রহণ করেন, তাদের এই রোগ হতে পারে।

কারণ, ক্যাফেইন ও অ্যালকোহল শরীর থেকে ক্যালসিয়াম কমিয়ে দেয়। ফলে হাড় দুর্বল হয়ে পড়ে। প্রতিরোধে করণীয়: পায়ের পাতা, হিপ বোন বা মেরুদণ্ডে ব্যথা হলে অবহেলা না করে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। সামান্য ব্যথা হলেও ফেলে রাখবেন না। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিয়মিত ভিটামিন ‘ডি’ ও ক্যালসিয়াম খান। নিয়মিত শরীর চর্চা করুন। খাবারের তালিকায় প্রচুর পরিমাণে সবুজ শাকসবজি, ফল, ডাল, দুধ ও দুধ জাতীয় খাবার রাখুন।

Check Also

মেদ ঝরাবে যেসব বীজ

মেদ ঝরাবে যেসব – স্বাস্থ্য সচেতনরা তাদের ডায়েটে আনছেন নানা বদল। এছাড়াও নিয়মিত ব্যায়াম হাঁটাহাঁটি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *