Monday , December 5 2022

হাত বাড়াতেই বাচ্চার মত চলে এলো কোলে, কোলে বসে অবুঝ শিশুর মত খাচ্ছে ফল, সবার হৃদেয়ে সাড়া ফেলেছে এক বানর ছানা ও এক মায়ের ভিডিও।

মানুষের সাথে অন্যান্য প্রাণীর সখ্যতা অতি প্রাচীনকাল থেকেই চলে আসছে। জীবন নির্বাহের জন্য মানুষ বিভিন্ন প্রানীকে বস মানিয়ে গৃহপালিত পশুপাখি হিসেবে পালন করতে থাকে। মাঝে মাঝে উভয়ের প্রতি দায়বদ্ধতা বা লালন পালন থেকে এ সম্পর্ক সৃষ্টি হয়ে থাকে। তবে মাঝে মাঝে বন্য প্রজাতির প্রাণীর সাথে মানুষের সখ্যতা লক্ষ্য করা যায়। অনেকে আবার শখের বশেও বিভিন্ন ধরনের অলাভজনক পশুপাখি পালন করে থাকে। পশুপাখির প্রতি এ ধরনের ভালোবাসা এ ধরনের মানুষের মানবিকতার পরিচয় দেয়।

আমাদের আশেপাশে গৃহপালিত প্রানী ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের শান্ত প্রকৃতির বন্য প্রানী বসবাস করে। মাঝে মাঝে হিংস্র রূপ ধারন করলেও এদের সাথে খারাপ ব্যবহার না করলে এরা কারো উপর আক্রমন করেনা। আমরা আমাদের আশেপাশে তাকালেই অনেক পশুপ্রেমী মানুষদেরকে দেখতে পাবো। কোনো স্বার্থ না লাভের আশায় নয় বরং নিজের ভালোলাগা আর মানবিকতা থেকেই এরা বিভিন্ন পশুপাখির দেখাশোনা করে থাকে।

ফলে এসব প্রাণীর সাথে তাদের নিবিড় সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ভালোবেসে এসব পশুপ্রেমীরা এদের বিভিন্ন নামে ডেকেও থাকে এবং সবাইকে অবাক করে দিয়ে এই অবুঝ প্রানীরা তাদের বন্ধুর ডাকে সাড়াও দেয়। আমাদের আশেপাশে বানর, কাঠবিড়ালির মতো বিভিন্ন প্রানীর দেখা মেলে। আরও দেখা মেলে কিছু পশুপ্রেমীদের সাথে তাদের সখ্যতার সম্পর্ক। পশুপ্রেমীরা যেমন খাবার আর যত্ন দিয়ে এসব নিরীহ অবুঝ প্রানীর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করে তারই প্রতিদানে বিভিন্ন সুরে আর নামে এদের ডাকলে সেই ডাকে সাড়া দিয়ে কাছে এসে পশুরা তাদের ভালোবাসা প্রকাশ করে।

দৃষ্টিনন্দন এ সম্পর্ক একদিকে আমাদেরকে যেমন অভিভূত করে ঠিক তেমনি আমাদের মাঝে ভাবনার উদ্রেক ঘটায় যে ভালোভাসার কোনো সীমা বা রূপ হয়না। সম্প্রতি পশুপ্রেমের এমনি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। ভিডিওতে আমরা দেখতে পাই একজন পল্লী জননীর সাথে নিরীহ বানরের সখ্যতার সম্পর্ক। গাছের কাছে গিয়ে নাম ধরে ডাকতেই লাফিয়ে পল্লী মায়ের কোলে চলে আসে ছোটো বানরছানা। তারপর স্নেহময়ী মহিলাটি পরম যত্নে আদর করে আঙুর খাওয়ায় বানর ছানাটিকে।

বানর ছানাটিও যেনো নিজের মায়ের মতো স্নেহ পেয়ে কোলে বসে আরাম করে ফল খাচ্ছে। মুহূর্তের মাঝে গাছ থেকে আরো কয়েকটি বানর নেমে এসে তার কাছে খাবারের জন্য আকুতি জানাতে থাকে। স্নেহময়ী মহিলাটি তাদেরকেও খাবার খেতে দিলে তারা পাশে বসেই পরম আনন্দে ফল খেতে থাকে। দেখে মনে হচ্ছে এ যেন ওই স্নেহময়ী জননীর সন্তান সব। বানর ছানা আর পল্লী জননীর সখ্যতা আর প্রাণীর প্রতি ভালোবাসার এই উপাখ্যান মূহুর্তেই ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে যায়। ভিডিওটি সবাই অনেক পছন্দ করার পাশাপাশি ইতিবাচক মনোভাব প্রকাশ করেছেন দৃষ্টিনন্দন সম্পর্কটি সবার মাঝে ইতিবাচক চেতনার জন্ম দেয়।

Check Also

‘TRP বাড়াতে এসব বন্ধ করুন’, ‘দিদি নম্বর 1’র বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন প্রতিযোগীর প্রাক্তন স্বামী

গত ১০ বছর ধরে সম্প্রচারিত হচ্ছে টেলিভিশনের অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’। বাঙলার ঘরে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.