Tuesday , January 18 2022

সোনার গ্রহাণু অভিযানে মন দিয়েছে নাসা, এক একটি টুকরোর মূল্য হবে কয়েকশো কোটি টাকা!

সমগ্র বিশ্বব্রহ্মাণ্ড জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে বহু আশ্চর্য সব জিনিস। যুগ যুগ ধরে সেইসব জিনিসের সন্ধান চালাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। যার মধ্যে কিছু জিনিসের সন্ধান মিললেও এখনো বহু জিনিস অধরা। খোঁজ চলছে। এই খোঁজের মধ্যেই মহাশূন্যে সন্ধান মিলেছে বহু আশ্চর্য জগতের। এরই একটি ১৬-সাইকি। প্ল্যাটিনাম, সোনা, লোহা, তামা-সহ একাধিক বহুমূল্য ধাতুতে ঠাসা এই গ্রহাণু। এ বার পৃথিবীর বুকে সেই সম্পদের ভাণ্ডারকে নামিয়ে আনার তোড়জোড় শুরু করে দিলেন বিজ্ঞানীরা। তাঁদের দাবি, ওই গ্রহাণুর এক একটি টুকরোয় বিশ্বের সবাই কোটিপতি হয়ে যেতে পারেন!

আজ থেকে প্রায় ১৭০ বছর আগে, ১৮৫২ সালেই ওই জগতের অস্তিত্বের কথা খানিকটা আন্দাজ করা গিয়েছিল। সেটি প্রথম আবিষ্কার করেন ইটালির জ্যোতির্বিজ্ঞানী আনিবেল দি গাসপারিস । শুরুতে আর পাঁচটা মৃতপ্রায় গ্রহাণুর মতোই মনে হয়েছিল বিজ্ঞানীদের। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সেই গ্রহাণুর মোহময়ী রূপ পরিলক্ষিত হয়। সেই ১৬-সাইকি গ্রহাণু অভিযানে নামছে আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। এই গ্রহাণুর অবস্থান পৃথিবী থেকে প্রায় ৩৭ কোটি কিলোমিটার দূরে মঙ্গল এবং বৃহস্পতি গ্রহের মাঝামাঝি। জানা গেছে, ২০২২ সালের আগস্টে এই গ্রহাণু অভিযানে নামছে নাসা। নাসার মহাকাশযানের পৌঁছতে সময় লাগবে প্রায় সাড়ে তিন বছর। বিজ্ঞানীদের লক্ষ্য ২০২৬-এর শুরুর দিকে ওই গ্রহাণু থেকে মূল্যবান ধাতু সমৃদ্ধ চাঙর তুলে এনে গবেষণা করা।

Check Also

দুধের চেয়ে স্বাস্থ্যের জন্য বেশি উপকারী বিয়ার! বলছে গবেষক

শারীরিক এবং মানসিক বিকাশের জন্য দুধের জুরি মেলা ভার। দুধের এই উপকারিতা দেখেই অধিকাংশ পরিবারে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page