Wednesday , July 6 2022

সুস্থ থাকার জন্য রাশি অনুযায়ী খাবারের তালিকা কেমন হওয়া উচিত

মেষ– মেষ রাশির জাতক-জাতিকাদের শরীর ঠান্ডা থাকে এমন খাবার খাওয়া প্রয়োজন। ঝাল, তেল বেশি মশলা জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলা উচিত।
খাবেন: ফলের রস, পালং শাক, লেবু। লেটুস পাতা, ব্রকোলি, টমেটো, পেঁয়াজ, কুমড়ো, আদা, সরষে ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: বেশি মশলা জাতীয় খাবার, নুন, অ্যালকোহল।

বৃষ– এঁদের খাবারে নুন বেশি থাকলে ক্ষতি নেই। কিন্তু যে খাবারে থাইরয়েড, সুগার ও ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে সে রকম খাবার খেতে হবে।
খাবেন: বিট, ফুলকপি, বিনস, পালং শাক, পেঁয়াজ, বাদাম, শশা ইত্যাদি
না খেলেই ভাল: বেশি তেল মশলা এবং বেশি পরিমাণে কার্বহাইড্রেট রয়েছে এমন খাবার।

মিথুন– এঁদের এমন খাবার খাওয়া উচিত যা স্নায়ুকোষ ও ফুসফুসকে ভাল রাখে। কোলা ও কফি এঁদের খুব পছন্দের। কিন্তু এটা এঁদের শরীরের পক্ষে খুব ক্ষতিকর।
খাবেন: আঙুর, কমলালেবু, গাজর, বিনস, আপেল, ফুলকপি ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: চিনি, আলু বা যে কোনো শিকড় জাতীয় সবজি, কফি।

কর্কট– এঁদের হজম প্রক্রিয়া খুব একটা ভাল হয় না। তাই পেট খালি রাখা যাবে না। বেশি মিষ্টি খেতে এঁরা পছন্দ করেন।
খাবেন: সেদ্ধ করা সবজি, ফল, ভাত, দানাশস্য, ওটমিল, কুমড়ো, শশা, ব্রকোলি ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: তেল যুক্ত খাবার, বেশি মিষ্টি, অতিরিক্ত লবণ।

সিংহ– এঁদের ভাল লাগে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট থাকে এমন খাবার। হৃদযন্ত্র ও স্নায়ুতন্ত্র ঠিক থাকা জরুরি। ছাগলের দুধ খাওয়া এঁদের পক্ষে উপযুক্ত।
খাবেন: তেতো সবজি, আলু-সহ যে কোনও শিকড় জাতীয় সবজি, যে কোনও লেবু, আপেল, ভাত, গোটাশস্য, বাদাম ইত্যদি।
না খেলেই ভাল: ডেয়ারি দ্রব্য ও মশলাদার খাবার।

কন্যা– ফাইবার জাতীয় ও ওমেগা ফ্যাট যে খাবারে বেশি আছে সেই খাবার খাওয়া প্রয়োজন। এর ফলে এঁদের মস্তিষ্ক ভাল চলবে।
খাবেন: চা, দানাশস্য, সালাড, ফলের রস, ফল, স্যুপ ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: আইসক্রিম, বেশি মশলা, হাই ক্যালরিযুক্ত খাবার, চকোলেট।

তুলা– রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে এমন খাবার, যে কোনো নেশা জাতীয় দ্রব্য ও কফি খাওয়া ঠিক নয়। প্রচুর পরিমাণে সবুজ সবজি খাওয়া প্রয়োজন।
খাবেন: সেদ্ধ সবজি, পালং শাক, টমেটো, গাজর, দানাশস্য, ভুট্টা, আপেল, বাদাম ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: অতিরিক মিষ্টি, ঠান্ডা পানীয়।

বৃশ্চিক– অতিরিক্ত জল খেতে হবে। লোহার ভাগ বেশি সে রকম খাবার খেতে এঁরা বেশি পছন্দ করেন। প্রচুর পরিমাণে ব্ল্যাক চেরি খেতে পারলে মেজাজ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
খাবেন: কলা, ব্ল্যাক চেরি, নারকেল, শশা, বাদাম, ভাপানো সবজি, টমেটো, ফুলকপি, বিনস ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: বেশি তেলযুক্ত খাবার, মিষ্টি ও অতিরিক্ত ভাজাভুজি।

ধনু– ধনু রাশির লিভারের সমস্যা হওয়া সাধারণ ব্যাপার। তাই সীমিত পরিমাণে খাবার খেতে হবে। প্রোটিন রয়েছে এমন খাদ্য খাওয়া দরকার।
খাবেন: বেশি পরিমাণে শিকড় জাতীয় সবজি, রাঙা আলু, আপেল, কমলালেবু, গাজর ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: বেশি মিষ্টি, তেলঝালের খাবার।

মকর– হাড় ও দাঁত মজবুত হয় এমন খাবার খাওয়া প্রয়োজন। তাই যে খাবারে ক্যালসিয়াম আছে সে রকম খাবার খেতে হবে। প্রচুর পরিমাণে ফল খাওয়া দরকার।
খাবেন: ফল, ফলের রস, বাঁধাকপি, ভুট্টা, চা, আলু ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: হাই ক্যালোরি খাবার, চকোলেট।

কুম্ভ– স্নায়ুতন্ত্রকে সুস্থ রাখে এমন খাবার। প্রচুর পরিমাণে সামুদ্রিক মাছ খেয়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা প্রয়োজন।
খাবেন: ভাপানো সবজি, কমলালেবু, ভুট্টা, গাজর, ছোলা, টমেটো, আদা, রসুন, পেঁয়াজ ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: কেক, কোলা, কফি, মিষ্টি।

মীন– মস্তিষ্ক, লিভার ও রক্ত ভাল রাখে এমন খাবার খাওয়া উচিত। তেল মশলা বেশি খেতে পছন্দ করেন। লোহার ভাগ বেশি রয়েছে এমন খাবার খাওয়া প্রয়োজন।
খাবেন: কমলালেবু, পাতিলেবু, আঙুর, কলা, মোচা, দানাশস্য, পেঁয়াজ ইত্যাদি।
না খেলেই ভাল: বেশি লবণ, চিনি, তেলেভাজা, কফি।

Check Also

জানেন কেন ভগবান জগন্নাথের বিগ্রহে হাত থাকে না?

হিন্দু ধর্মের অন্যতম জনপ্রিয় দেবতা জগন্নাথ। আমাদের দেশের উড়িষ্যাও বিখ্যাত জগন্নাথদেবের জন্যেই। জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রা, আমরা প্রত্যেকে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.