Wednesday , July 6 2022

শিবের পুজোয় ভুলেও করতে নেই শঙ্খের ব্যবহার, জানেন কেন?

হিন্দু ধর্মে শঙ্খ গুরুত্বপূর্ণ স্থান অধিকার করে থাকে। শঙ্খকে অত্যন্ত শুভ মনে করা হয়। পাশাপাশি হিন্দু শাস্ত্রে বিভিন্ন ধরনের শঙ্খের উল্লেখ পাওয়া যায়। যার ব্যবহারও ভিন্ন ভিন্ন ও এর প্রতিটিই শুভ ফলদায়ী। শঙ্খ বিষ্ণুর অত্যন্ত প্রিয়। বিষ্ণুর পুজোয় শঙ্খ ব্যবহার করা হয়। এমনকি অনেক পূজার্চনায় শঙ্খ ব্যবহৃত হয় ও শঙ্খধ্বনিও করা হয়। বিষ্ণুর পাশাপাশি শঙ্খ লক্ষ্মীর বিশেষ প্রিয়। প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী যে বাড়িতে শঙ্খ থাক, সেখানে লক্ষ্মীর বাস হয়। কিন্তু এমন একজন দেবতা রয়েছেন, যাঁর পুজোয় শঙ্খ ব্যবহার করা হয় না। বিষ্ণুর পুজোয় শঙ্খ ব্যবহার করে তাঁকে প্রসন্ন করা গেলেও দেবাদিদেব মহাদেবের আরাধনায় শঙ্খের ব্যবহার বর্জিত। তবে কেন বর্জিত, তা কী জানা আছে? এর পিছনে একটি পৌরাণিক কাহিনি প্রচলিত রয়েছে।

একদা শ্রী রাধা গোলক ধামে ছিলেন না। নিজের সখী বিরজার সঙ্গে বিহার করছিলেন শ্রী কৃষ্ণ। সে সময় রাধা সেখানে পৌঁছন এবং কৃষ্ণকে বিরজার সঙ্গে বিহার করতে দেখে রেগে যান। ক্রোধবশত রাধিকা বিরজার উদ্দেশে এমন কিছু শব্দ ব্যবহার করেন, যা শুনে বিরজা লজ্জিত হয়ে পড়েন। তার পর লজ্জাবশত নদী রূপ ধারণ করে প্রবাহিত হতে শুরু করেন বিরজা। রাধার নিষ্ঠুর শব্দ শুনে কৃষ্ণের বন্ধু সুদামাও কষ্ট পান। ক্ষোভে তিনি রাধার সঙ্গে উচ্চস্বরে কথা বলেন। সুদামার এহেন আচরণে ক্ষুব্ধ রাধা তাঁকে দানব রূপে জন্মগ্রহণ করার অভিশাপ দিয়ে বসেন।

আবেগতাড়িত হয়ে হিতাহিতজ্ঞানশূণ্য সুদামাও রাধাকে মনুষ্য যোনিতে জন্মগ্রহণ করার অভিশাপ দেন। রাধা রানীর অভিশাপের প্রভাবে সুদামা শঙ্খচূড় নামক দানব হয়ে জন্মগ্রহণ করেন। শিবপুরাণে দম্ভের পুত্র শঙ্খচূড়ের বর্ণনা পাওয়া যায়। শক্তির জোরে ত্রিলোকের অধীশ্বর হয়ে ওঠে শঙ্খচূড়। তার পরই শুরু হয় সমস্ত সাধু-সন্তদের তাঁর অকথ্য অত্যাচার। এ সময় সাধু-সন্তদের প্রাণ রক্ষার্থে শঙ্খচূড়ের বধ করেন মহাদেব। তার হাড় দিয়েই শঙ্খ তৈরি করেন বিষ্ণু। এ কারণে বিষ্ণু ও অন্যান্য দেবীদেবতাদের শঙ্খ দিয়ে জল দেওয়া হলেও শিব পুজোয় শঙ্খের ব্যবহার নিষিদ্ধ।

শঙ্খচূড়ের বধ করেছিলেন বলে শিবের পুজোয় শঙ্খ ব্যবহৃত তো হয়ই না, এমনকি শিবকে শঙ্খ দিয়ে জলও দেওয়া হয় না।

কেউ যদি ভুলে শিব আরাধনায় শঙ্খ ব্যবহার করে থাকেন, তা হলে শীঘ্র এর ব্যবহার বন্ধ করা উচিত।

Check Also

জন্মাষ্টমীর দিন এই জিনিসটি অবশ্যই বাড়িতে রাখুন, সুখ ও সম্পদে ভরে উঠবে সংসার

জন্মাষ্টমীর দিন ছাড়া ভারতবর্ষজুড়ে ছোট্ট গোপালের আরাধনা করা হয়। কেউবা পুত্ররূপে আবার কেউবা ভগবান শ্রীকৃষ্ণকে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.