Saturday , January 28 2023

রহস্যের মোড়কে কৈলাস পর্বত! নিষিদ্ধ এলাকায় প্রবেশ করলেই মৃত্যু, বেড়ে যায় নখ

কৈলাস পর্বতকে ঘিরে রয়েছে নানান রহস্যের বেড়াজাল। হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী , এই পর্বতে বসবাস করেন মহাদেব। কৈলাস পর্বত বলতেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে এক অজানা লোকের কথা, যেখানে শ্বেতশুভ্র বরফে ঢাকা পরিবেশে বাস করছেন দেবতারা। শুধু তাই নয়, এই পর্বতকে ঘিরে রয়েছে মানুষের মনে এক বিশ্বাস। মনে করা হয় দেবতার ভূমি কৈলাস থেকে প্রতিবছর দেবী পার্বতী সন্তান সহ দুর্গাপুজোর সময় মর্তে আগমন করেন।

কৈলাস পর্বতকে ঘিরে রহস্যের বেড়াজাল
পৃথিবীর বুকে বহু বিস্ময় নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে এই কৈলাস পর্বত। এই পর্বতের উচ্চতা মাউন্ট এভারেস্টের থেকে অনেক কম , কিন্তু তাও কৈলাসের মাথায় এখনও পর্যন্ত কেউ চড়তে পারেননি। প্রতিবছর লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষ কৈলাসের পাদদেশে আসেন পুণ্য অর্জনের জন্য। তীর্থযাত্রীরা জানেন এখানে রয়েছে বহু প্রতিকূলতা , কিন্তু তাদের বিশ্বাসের কাছে সবকিছু হার মেনে যায়।

মনে করা হয়, কেউ যদি পাহাড়ের চূড়ায় উঠতে চান তিনি নাকি দেবতাদের রোষানলে পড়েন। শুধু তাই নয় বহু মানুষ এই পর্বতে ওঠার সময় সম্মুখীন হয়েছিলেন নানান অতিপ্রাকৃত বিপদের, এমনকি বহু মানুষ হয়েছেন পথভ্রষ্ট। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণেই কৈলাসের কিছুদূর ওঠার পর নাকি শরীরের নানান অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কাজ করা বন্ধ করে দেয়। এখানে কেউ যদি টানা ১২ ঘন্টা থাকেন তার দৈহিক বয়স দ্রুত বৃদ্ধি পায় এবং তিনি মারা যান। যদিও এই সব প্রচলিত বিশ্বাস গুলির মধ্যে কোন বৈজ্ঞানিক যুক্তি আজ পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি। রহস্যে ঘেরা এই পর্বত শুধুমাত্র হিন্দু সম্প্রদায় নয় , বৌদ্ধদের কাছেও অত্যন্ত পবিত্র একটি স্থান।

লোকচক্ষুর আড়ালে তপস্যা
Dr. Ernst Muldashev তার ‘হোয়ের ডু উই কাম ফ্রম’, নামক বইতে লিখেছেন কৈলাসে কাটানোর নানান দিনের বর্ণনা। তিনি জানিয়েছেন, এখানে মানব নির্মিত একটি বিশাল বড় প্রাচীন পিরামিড রয়েছে এবং তাকে ঘিরে রয়েছে অসংখ্য ছোট ছোট পিরামিড। এখানে অসংখ্য প্রাচীন গুহায় লোকচক্ষুর আড়ালে বহু মুনি-ঋষিরা তপস্যা করেন।

নিষিদ্ধ অঞ্চলে প্রবেশ করা মাত্রই মৃত্যু
কৈলাস পর্বতকে কেন্দ্র করে একটি তিব্বতি লোককথা প্রচলিত রয়েছে। মিলারেপা নামক এক বৌদ্ধ সন্ন্যাসী নাকি কৈলাস পর্বতের কাছাকাছি পৌঁছাতে পেরেছিলেন। তিনি ফিরে আসার পরেই প্রত্যেককে সাবধান করে দেন যেন কেউ ওই পর্বতের কাছে না যান, কারণ ওখানে থাকেন ঈশ্বর। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হল, এই পর্বতের কাছেই মানস সরোবর এবং রাক্ষসতাল হ্রদ রয়েছে।

যদি খুব জোরে হাওয়া বয় তাহলে রাক্ষস তালের জল উত্তাল হবে, কিন্তু মানস সরোবরের জল সর্বদা শান্ত। এছাড়াও নাকি একবার এক দল সাইবেরিয়ান পর্বতারোহী কৈলাস পর্বতের নিষিদ্ধ অঞ্চলে পৌঁছে যান, আর সাথে সাথে তাঁদের বয়স বেড়ে যায় বহুগুণ এবং অকাল বার্ধক্যের কারণে মৃত্যু ঘটে। আজও বহু রহস্যের ঘেরাটোপে দণ্ডায়মান রয়েছে কৈলাস পর্বত।

Check Also

মুসলিম মহিলার হাতে শক্তির দেবীর আরাধনা, কালীপুজো ঘিরে এগাঁয়ে উন্মাদনা তুঙ্গে

এক মুসলিম মহিলার হাতে পূজিত হন মা কালী। তাঁর হাতেই এপুজোর শুরু। বছরের পর বছর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.