Sunday , September 19 2021

মাসে রোজাগার ২৫ হাজার টাকা, কী ভাবে বিনা খরচে আবেদন করবেন

কয়েকটি শর্ত মানলেই ব্যবসায় বিনিয়োগ করবে কেন্দ্রীয় সরকার। আর তা থেকে নাকি মাসে ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা আয় হতে পারে। জেনে নিন আবেদন-পদ্ধতি।প্রধানমন্ত্রী ভারতীয় ‘জনঔষধি কেন্দ্র’ প্রকল্পে আড়াই লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করবে কেন্দ্র। এর জন্য আবেদন করতেও কোনও খরচ নেই।

অনলাইনেও করা যাবে আবেদন। কেন্দ্রীয় ফার্মাসিউটিক্যালস মন্ত্রকের এই প্রকল্পের দু’টি লক্ষ্য। কর্মসংস্থান ও সাধারণ মানুষকে সস্তায় ওষুধ দেওয়ার জন্যই দেশের সর্বত্র সরকারি ওষুধের দোকান খুলতে চায় সরকার। শুধু বিনিয়োগের টাকাই নয়, এই প্রকল্পে আবেদনকারীদের আরও বেশ কিছু সুবিধা দেবে সরকার।

জেনে নিন, কী ভাবে ‘জনঔষধি স্টোর’ খোলার জন্য আবেদন করা যাবে।

আবেদন করার আগে একটা বিষয় মনে রাখতে হবে যে, শুরুতেই ১ লাখ টাকা থাকা দরকার। ১ লাখ টাকার ওষুধ প্রথম ধাপে কিনতে হবে। মাসে মাসে এই টাকা ফিরিয়ে দেবে সরকার। দোকান তৈরির জন্য অর্থাৎ, ওষুধের র‌্যাক, ডেস্ক, কাউন্টার তৈরির জন্য ১ লাখ টাকা পর্যন্ত দেবে কেন্দ্র। সরকার পরবর্তী ৬ মাসে ফিরিয়ে দেবে ওই টাকা।

একই ভাবে স্টোরে কম্পিউটার-এর ব্যবস্থা করার জন্য সরকারি হিসেব খরচ করা যাবে সর্বাপেক্ষা ৫০ হাজার টাকা। এই টাকাও সরকার ফিরিয়ে দেবে। প্রতি মাসে মোট বিক্রির উপরে ১০ শতাংশ ইনসেনটিভ পাওয়া যাবে। তবে এই লিমিট ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত। বিক্রেতা যদি কোনও মাসে ১ লাখ টাকার বেশি ব্যবসা করেন সেক্ষেত্রেও ১০ হাজার টাকাই ইনসেনটিভ পাওয়া যাবে।

এই ইনসেনটিভ ততদিন পাওয়া যাবে, যতদিন না আড়াই লাখ টাকা পাওয়া যাচ্ছে। এর পরে সাধারণ ব্যবসার নিয়মেই ওষুধ কিনে বিক্রি ও লাভ। তিন ধরনের ব্যক্তি ও সংস্থা ‘জনঔষধি স্টোর’ খোলার জন্য আবেদন করা যাবে।

প্রথমত, কর্মহীন ফার্মাসিস্ট, ডাক্তার, রেজিস্টার্ড মেডিক্যাল প্র্যাক্টিশনার এমন স্টোর খুলতে পারবেন এছাড়া সাধারণ মানুষও আবেদন করতে পারেন। দ্বিতীয় ক্যাটাগরিতে যে কোনও ট্রাস্ট, এনজিও, বেসরকারি হাসপাতাল, সোসাইটি কিংবা সেলফ হেল্প গ্রুপ। আর তৃতীয় ক্যাটাগরিতে স্টোর খুলতে পারবে রাজ্য সরকার মনোনীত কোনও এজেন্সি।

অনলাইন, অফলাইন— দুই পদ্ধতিতেই আবেদন করা যাবে। ফার্মাসিউটিক্যালস মন্ত্রকের ‘ব্যুরো অফ ফার্মা পিএসইউ ইন্ডিয়া’ (বিপিপিআই)-এর ওয়েবাসইটে গিয়ে আবেদন করা যাবে। সেখানেই অফলাইন আবেদনের ফরম মিলবে।

Check Also

রেললাইনের ওপর কোনো পশুপাখি বা মানুষ দেখেও কেন ড্রাইভাররা ব্রেক মারেন না জানেন কি? রইল বিস্তারিত।

আপনারা যারা বা আমরা যারা ট্রেনের পরিসেবা গ্রহণ করে থাকি তার একটা জিনিস ভালো মত ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *