Sunday , September 19 2021

মানিব্যাগে এই 7 টি জিনিস রাখলে মা লক্ষ্মীর কৃপায় টাকার অভাব হবেনা কোনদিন! জানুন বিস্তারিত।

মানুষের ইচ্ছে এবং চাহিদা প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকে এবং প্রত্যেকে চাইছে যেতে জীবনে একটা মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতে পারেন ।কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে হয়তো সেটা হয় না । আবার কেউ কেউ মোটা অংকের টাকা উপার্জন করলেও ঠিক মতন ভাবে টাকা সঞ্চয় করতে পারে না ।

তবে এই সমস্ত সমস্যা গুলি কিছুটা সমাধান রয়েছে এই সমস্ত বিষয়ের উপর । আমরা প্রত্যেকেই মানি ব্যাগ ব্যবহার করি এবং মানিব্যাগে মধ্যে টাকা পয়সা রেখে থাকি কিন্তু আপনি কি জানেন যে মানিব্যাগ থেকে টাকা পয়সা খরচ হবার হবার প্রবণতা কিছুটা হল নির্ভর করে এর রং এবং বিশেষ কয়েকটি বিষয়ের উপর সেই সমস্ত বিষয়গু-লি আজকে আলোচনা করব এই প্রতিবেদনে ।

চাল :- প্রতিদিনকার জীবনে চাল তন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান । কিন্তু পুরাণমতে বলছে যদি চালের ২১ টি দানা একটি কাগজে মুড়ে আপনি মানি ব্যাগের মধ্যে রাখেন তাহলে কিন্তু আপনার অর্থের অভাব দূর হতে শুরু করবে । প্রসঙ্গত উল্লেখ্য মানিব্যাগের রং এর উপর কিন্তু নির্ভর করে আর্থিক অবস্থা ।

দেবদেবীর মূর্তি :-অতি অবশ্যই মানিব্যাগে একটি ধনদেবীর মূর্তি রাখতে হবে । আমাদের দেশে ধনলক্ষ্মী মানে হচ্ছে লক্ষ্মী । লক্ষ্মীর একটি মূর্তি গোপনে রেখে দেন আপনি আপনার মানিব্যাগে ।তাহলে আপনার জীবনে অর্থের অভাব অনেকখানি দূর হবে।

টাকা :- মা বাবার আশীর্বাদ দেওয়া একটি টাকা মধ্যে হলুদ লাগিয়ে সেটি রেখে দিন আপনি আপনার মানিব্যাগ এর মধ্যে কখনো কোন দিন সে টাকা খরচা করবেন না । যতই কঠিন পরিস্থিতি আসুক সেই টাকা কিছুতেই খরচ করা চলবে না । তাহলে দেখবেন ধীরে ধীরে কমে এসেছে আপনার অর্থের অভাব।

অশ্বত্থ পাতা :- পুরাণ মতে অশ্বত্থ গাছ সবসময়ই শুভ লক্ষণের প্রতীক। তাই একটি অশ্বত্থ পাতা নিয়ে তা জলে ধুয়ে মানিব্যাগে রেখে দিন। পাতাটি শুকিয়ে গেলে তা ফেলে দিয়ে সতেজ পাতা রাখুন। এরফলে আপনার কখনোই টাকার অভাব হবে না। ভুলেও শুকনো পাতা রাখবেন না। তাহলে হতে পারে উলটো ফল। টাকা আসার বদলে টাকা বেরিয়ে যাবে। এছারাও যদি আপনার কোন ইচ্ছা থাকে তাহলে একটি সাদা কাগজে লিখে লাল খামে ভরে মানিব্যাগে রেখে দিন। নিশ্চই আপনার মনের ইচ্ছা পুরন হবে।

Check Also

আপনি কি সিঁড়ি দিয়ে ওঠা নামা করেন? জেনেনিন এটি স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো না খারাপ

প্রতিদিন কিছু না কিছু ব্যায়ামের অভ্যাস গড়ে তোলা শরীরের জন্য ভালো। কিন্তু যারা হাঁটতে চান ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *