Thursday , September 16 2021

যে ৬টি ভু’লে দে’হের কিডনি ২টি নিজেই ন’ষ্ট করে ফে’লছেন!

আমাদের শরীরের নানা ব’র্জ্য পদার্থ, অব্যবহৃত খাদ্য এবং বাড়তি পানি নিষ্কা’শনে সাহায্য করে কিডনি। দেহের নানা ব’র্জ্য পদার্থের ক্ষ’তিকর টক্সিন থেকে আমাদের শরী’রকে মু’ক্ত রাখার জন্য কি’ডনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। আর একারণেই আমাদের দেহের সু’স্থতার জন্য কিডনির সু’স্থতা অনেক বেশি জ’রুরী।

কিন্তু আমরা বেশিভাগ সময়েই কিডনির দিকে ঠিক মতো নিজ্র দিতে ভু’লে যাই। আর শুধুমাত্র এই কারণে প্রতিবছর অনেক মানুষ কিডনির সম’স্যায় পড়ে থাকেন। এবং কিডনির সম’স্যায় মৃ’ত্যুর হারই বেশি। কিডনির প্রতি আমাদের ঠিকমতো নজর না দিয়ে কিডনির রো’গে আক্রা’ন্তের জন্য দায়ী আমরা নিজেরাই। প্রতিনিয়ত আমরা এমন কিছু অনিয়ম করে থাকি যার প্রভাব সরাসরি পড়ে আমাদের কিডনির ওপর। কিন্তু আমাদের নিজের ভালোর জন্য আমাদের সত’র্ক হওয়া প্রয়োজন।

ম’দ্য’পান করা: ম’দ্য’পান কিডনির জন্য সব চাইতে বেশি ক্ষতিকর। অ্যালকোহল কিডনি আমাদের দে’হ থেকে স’ঠিক নিয়মে নি’স্কাশন করতে পারে না। ফলে এটি কি’ডনির মধ্যে থেকেই কিডনির কা’র্যক্ষ’মতা ক’মিয়ে দিয়ে কি’ডনি ন’ষ্ট’ করে দেয়। অতি’রি’ক্ত ম’দ্য’পানের কারণে লি’ভার সিরোসিসের মতো মা’রা’ত্মক রো’গে আ’ক্তা’ন্ত হন অনেকেই। এই রো’গে মৃ’ত্যুর হার অনেক বেশি। তাই ম’দ্য’পান থেকে দূ’রে থাকুন।

পর্যা’প্ত পানি পান না করা : কিডনির সুর’ক্ষার জন্য সব চাইতে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে পানি। আমরা অনেকেই পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করি না। এতে ক্ষ’তি হয় কিডনির। বাসা থেকে বাইরে বের হলেই অনেকের পানি পানের কথা মনে থাকে না। কিন্তু এতে কিড’নির ওপর অনেক বেশি পরিমাণে চাপ পড়ে এবং কি’ডনি তার সাধারণ কর্ম’ক্ষমতা হারিয়ে ফে’লে। একজন পূর্ণ’ব’য়স্ক মানুষের দিনে ৬-৮ গ্লাস পানি পান করা অত্যন্ত জরুরী। তাই সাথে সব সময় পানির বোতল রাখুন।

অতি’রি’ক্ত লবণ খাওয়া: অনেকের বাড়তি লবণ খাওয়ার বাজে অভ্যাস রয়েছে। খেতে বসে প্লেটে আলাদা করে লবণ নিয়ে খান অনেকেই। কিন্তু এই অনিয়মটির কারণে অনেক বেশি ক্ষ’তি হচ্ছে কিডনির। কিডনি অতি’রি’ক্ত সোডিয়াম আমাদের দেহ থেকে নি’ষ্কা’শন করতে পারে না। ফলে বাড়তি লবনের সোডিয়ামটুকু রয়ে যায় কিডনিতেই। এতে ক্ষ’তি’গ্র’স্থ হয় কিডনি। এমনকি কিডনি ড্যামেজ হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে।

মাংস বেশি খাওয়া: অনেকের একটি বড় বাজে অ’ভ্যাস রয়েছে যা হলো মাংসের প্রতি আস’ক্ত’তা। অনেকেই শাকসবজি ও মাছ বাদ দিয়ে শুধু মাংসের উপর নির্ভরশীল থাকেন। এই অনিয়মটিও কিডনির জন্য মা’রা’ত্মক ক্ষ’তি’কর। কিডনির সুর’ক্ষার জন্য মাছ ও শাকসবজি অনেক বেশি জরুরী। অতিরিক্ত মাংস খাওয়া কিডনির কার্য’ক্ষ’মতা কমিয়ে দেয়। তাই খাদ্যাভ্যাসটা ঠিক করুন।

অতি’রি’ক্ত ব্য’থানা’শক ঔ’ষধ খাওয়া: অনেকেই সামা’ন্য ব্যথা পেলেই ব্যথানাশক ঔ’ষধ খেয়ে থাকেন। বিশেষ করে মাথাব্যথার কারণে অনেকেই এই কাজটি করে থাকেন। কিন্তু এটি কিডনির জন্য মারাত্মক ক্ষ’তি’কর একটি কাজ। অতি’রি’ক্ত মাত্রায় এই ধরণের ব্য’থা’নাশক ঔ’ষধ কি’ডনির কো’ষগু’লোর মা’রা’ত্মক ক্ষ’তি করে। এতে পুরোপুরি ড্যামেজ হয়ে যায় কিডনি। তাই ডা’ক্তারের পরামর্শ ছা’ড়া ভুলেও কোনো ব্য’থা’শক ঔ’ষধ খাবেন না।

পস্রা’ব আ’টকে রাখা : ঘরের বাইরে বেরুলে অনেকেই এই কাজটি করে থাকেন। মনে করেন খনিক্তা সমত পস্রাব আ’টকে রাখলে তেমন কোন ক্ষ’তি হবে না। আপাত দৃ’ষ্টিতে এর ক্ষ’তির মাত্রা ধরা না পরলেও এটি কি’ডনিকে ন’ষ্ট করে দেয় খুব দ্রুত। প’স্রাব আ’টকে রাখলে কিডনির ওপর অনেক বেশি চা’প পরে এবং কিডনি সাধারণ কর্মক্ষমতা হারিয়ে ফে’লে। তাই ভু’লেও এই কা’জটি করতে যাবেন না। বাসায় ফে’রার জন্য অপেক্ষা না করে অন্য উপায় খুঁ’জে নিন। এতে করে কি’ডনি থাকবে সু’স্থ।

Check Also

পু’রুষত্ব ন’ষ্ট হতে পারে ৮টি অ’ভ্যাসে, ২ নাম্বারটা খাবেন না

সুস্থ থাকার জন্য চাই স্বা’স্থ্যকর জীবনপ’দ্ধতি। লি’’ঙ্গ সুস্থ রাখতেও তাই ত্যাগ করতে হবে বদভ্যাস। সঠিক ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *