Friday , December 2 2022

প্রতিদিন সকালে তিনটি করে আমন্ড খান, আর মুক্তি পান এইসব রোগ থেকে

ভারতীয় রীতি অনুযায়ী রোজ সকাল বেলায় উঠে প্রাতরাশ এ ছোলা ও বাদাম ভেজানো খাওয়া চলে আসছে সেই ঋষি মুনিদের সময় থেকে। এখনো বাড়ির মা ঠাকুমারা শরীরের সুস্থতা বজায় রাখতে এই অভ্যাসটি ধরে রেখেছেন পরিবারের মধ্যে। ডায়াবেটিস, হার্টের রোগ, প্রেসারের সমস্যায় প্রতিদিন সকাল বেলায় উঠে তিনটি করে ভেজানো আমন্ড এবং চিনা বাদাম খেতে পারলে শরীর থাকবে সম্পূর্ণ রোগমুক্ত।

আমন্ড ঠাসা পুষ্টিগুনে- দিনের শুরু হোক পুষ্টি দিয়ে! আমন্ডের মধ্যে থাকা ফাইবার, ভিটামিন ই, ম্যাগনেসিয়াম, প্রোটিন চুল এবং শরীরের সুস্থতা ও মজবুতির জন্য বিশেষ প্রয়োজনীয়।

হজমের সমস্যায় আমন্ড- যাদের গ্যাস অম্বল জাতীয় সমস্যা রয়েছে তারা প্রতিদিন তিনটি করে ভেজানো আমন্ড খেতে পারেন কেননা এর মধ্যে থাকা একপ্রকার এনজাইম দ্রুত শরীরে হজমক্রিয়া বাড়িয়ে দেয়। তবে মনে রাখতে হবে কাঁচা আমন্ডের থেকে ভেজানো আমন্ড খাওয়া বেশি উপকারী কেননা ইহা হজম তাড়াতাড়ি হয়।

হাড়, ত্বক এবং চুলের জন্য আমন্ড- আমন্ডেরর মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি ত্বককে কোমল ও মোলায়েম করে তোলে। এই জন্যেই ত্বকের ক্ষেত্রে আমন্ড অয়েলের ব্যবহার এতটা বেশি। এছাড়াও চুলের ক্ষেত্রে ও আমন্ড অয়েল বিশেষ উপযোগী। কাঁচা আমন্ড আপনার চুল মজবুত এর সাহায্য করে চুল পড়া কমায়।

মস্তিষ্ক সচল রাখতে আমন্ড- আমাদের মধ্যে থাকা ভিটামিন-এ মস্তিষ্ক সচল রাখতে বিশেষ উপকারী। সেই জন্য স্টুডেন্টদের প্রতিদিন একটি করে আমন্ড খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়ে থাকে। যাদের অ্যালঝাইমার্স এর সমস্যা রয়েছে তাদের প্রত্যহ আমন্ড খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিত। ইহা মস্তিষ্কের সচলতা বৃদ্ধি করার সাথে সাথে স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

Check Also

Hair Care: চুল পড়া বন্ধ করতে এবং নতুন চুল গজাতে ব্যবহার করুন পেঁয়াজের রস, রইল ঘরোয়া টিপস

পুজোর আগে তো আমরা চুলের যত্ন নিতে উঠে পড়ে লেগে যায়। তাছাড়া পুজোর চার দিন ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.