Friday , December 2 2022

প্রচণ্ড জ্বর, নাক দিয়ে অনর্গল রক্তপাত! অজানা অসুখের প্রকোপে বাড়ছে আতঙ্ক

কোভিডের প্রকোপ কমলেও এখনও মুক্তি মেলেনি। এর মধ্যেই মাঙ্কিপক্সের আতঙ্ক শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই আরেক ভয়ংকর রোগের প্রাদুর্ভাব ইরাকে (Iraq)। এই রোগের লক্ষণ প্রচণ্ড ও নাক দিয়ে রক্তপাত। আর টানা রক্তপাতই ডেকে আনছে মৃত্যু। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। এক সর্বভারতীয় সংস্থার প্রতিবেদন থেকে এই কথা জানা গিয়েছে।

WHO আরও জানিয়েছে এটি একটি ভাইরাসবাহিত অসুখ। এখনও এর কোনও টিকা নেই। একটি রিপোর্টের দাবি, প্রথম বার যিনি এই অসুখে আক্রান্ত হয়েছিল, তিনি একজন স্বাস্থ্যকর্মী। গরুদের উপরে কীটনাশক স্প্রে করার সময়ই তিনি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন।

ইতিমধ্যেই সংক্রমণ রুখতে সচেতনতা অবলম্বন করেছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। পিপিই কিট পরে তাঁরা কাজ করছেন। অসুখটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘ক্রিমিয়ান-কঙ্গো হেমারেজিক ফিভার’ তথা সিসিএইচএফ। WHO আরও জানিয়েছে, মূলত পতঙ্গরাই এর প্রাথমিক বাহক বলে মনে করা হচ্ছে। তাদের দংশনে পশুদের শরীরে এর প্রাদুর্ভাব ঘটছে। সেখান থেকে ছড়িয়েছে মানুষের মধ্যেও। এখনও পর্যন্ত এই অসুখে আক্রান্ত হয়েছেন ১১১ জন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এই ভাইরাসের সংক্রমণ খুব দ্রুত ছড়াচ্ছে। তাঁদের মতে, যেহেতু রোগীর শরীরের ভিতর ও বাইরে রক্তপাত ঘটছে, সেই কারণেই দ্রুত ভাইরাস অন্য মানুষের দেহে ছড়িয়ে পড়ছে।

এই রোগের ক্ষেত্রে মৃত্যুর মূল কারণই নাক দিয়ে গলগল করে রক্তপাত। এখনও পর্যন্ত অর্ধেকের বেশি ক্ষেত্রেই আক্রান্ত হয়েছেন দক্ষিণ ইরাকের বাসিন্দারা। ওই অঞ্চল মূলত কৃষক অধ্যুষিত। এক স্বাস্থ্যকর্মী জানিয়েছেন, গত বছরও এই অসুখে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছিল। কিন্তু সেই সময় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল হাতে গোনা। কিন্তু এবার অসুখ ছড়াচ্ছে দ্রুত। ফলে বাড়ছে আশঙ্কা।

Check Also

আপনি জানেন কি মুলা আমাদের কি উপকার করে

শীত মানেই জীবাণুদের আড্ডা। আর আমাদের আশেপাশে জীবাণুদের সংখ্যা বাড়বে মানে শরীর খারাপ তো হবেই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.