Tuesday , December 6 2022

দড়ি ছাড়াই দেড়শো ফুট উঁচু থেকে ঝাঁপ! বাঞ্জি জাম্পিং করতে গিয়ে ‘ভুল বোঝাবুঝিতে’ মৃত তরুণী

অ্যাডভেঞ্চারের নেশায় বাঞ্জি জাম্পিং করতে গিয়েছিলেন প্রেমিকের সঙ্গে। সেই খেলাই হয়ে উঠল মৃত্যুর কারণ। দড়ি না বেঁধেই দেড়শো ফুটেরও বেশি উচ্চতা থেকে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণ গেল তরুণীর। ২৫ বছর বয়সি ওই তরুণীর নাম ইয়েসিনা মোরালেস গোমেজ়। উত্তর কলম্বিয়ার অ্যামাগার স্কাই বাঞ্জি জাম্পিং নামের একটি সংস্থার ঘটনা। তরুণী কেন এমন কাণ্ড ঘটালেন, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে রহস্য। তদন্ত শুরু করেছে প্রশাসন।

বাঞ্জি জাম্পিং একটি ‘অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টস’। এই খেলায় উঁচু কোনও জায়গা থেকে শরীরে দড়ি বেঁধে লাফ দেন অংশগ্রহণকারীরা। স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে খবর, প্রায় পঞ্চাশ মিটার উঁচু একটি সেতু থেকে বাঞ্জি জাম্পিং করতে গিয়েছিলেন ইয়েসিনা। স্থানীয় মেয়র একটি বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ভুল বোঝাবুঝির কারণেই ঝাঁপ দেন ওই তরুণী। তাঁর দাবি, ইয়েসিনা ও তাঁর প্রেমিক একসঙ্গেই ঝাঁপ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। প্রেমিকের দড়ি বাঁধার পর প্রশিক্ষক তাঁকে ঝাঁপ দিতে বলেন। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ইয়েসিনা ভাবেন, প্রশিক্ষক তাঁকে সেই নির্দেশ দিয়েছেন। ফলে না দেখেই লাফ দেন তিনি। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, লাফানোর পর হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তরুণীর।

যে সংস্থার অধীনে ওই তরুণী বাঞ্জি জাম্পিং করতে গিয়েছিলেন, সেই সংস্থা ভুল বোঝাবুঝির অভিযোগ অস্বীকার করেছে। একটি বিবৃতিতে সংস্থা জানিয়েছে, একসঙ্গে দু’জন লাফানোর নিয়ম নেই তাদের সংস্থায়। আলাদা আলাদা ভাবেই প্রত্যেকের লাফানোর বন্দোবস্ত করা হয়। সংস্থার দাবি, ঘটনার সময়ে মোটেই তরুণীর সঙ্গে তাঁর প্রেমিক ছিলেন না। ঘটনার পর তৎক্ষণাৎ তাঁকে উদ্ধার করা হয়েছিল বলে দাবি সংস্থার। ইতিমধ্যেই তদন্তকারী সংস্থার কাছে সব তথ্যপ্রমাণ জমা দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা। ফলে ঠিক কী কারণে ওই তরুণী দড়ি ছাড়া ঝাঁপ দিলেন, তা নিয়ে ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য।

Check Also

এক ধাক্কায় অনেকটাই কমল সোনার দাম,বাজারে হটাৎ প্রচুর ক্রেতা, রইলো বাজারে আজকের দাম!

সোনা বর্তমানে সর্বাধিক চাহিদা সম্পন্ন ধাতু। সোনার দামের উত্থান পতনের দিকে সাধারণ মধ্যবিত্তদের সবসময় নজর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.