Sunday , February 5 2023

জীবনে সাফল্যের পথ খুঁজে নিতে রাবণের এই উপদেশগুলি জেনে রাখুন

রামায়ণ এবং অন্যান্য হিন্দু শাস্ত্রমতে, শ্রীরামচন্দ্র কর্তৃক রাবণ বধের দিন।‌ বাল্মিকী রামায়ণে রাবণকে অশুভ শক্তি— একজন নিখাদ খলনায়ক রূপেই বর্ণনা করা হয়েছে।

বাল্মীকি রচিত রামায়ণ ছাড়াও সারা ভারতবর্ষে আরও একাধিক রামায়ণের অস্তিত্ব রয়েছে। এর সবগুলিতেই যে লঙ্কেশ খলনায়ক, তা যদিও নয়। এইসব গ্রন্থে বরং তাঁকে একজন প্রজাবৎসল রাজা হিসেবেই দেখানো হয়েছে। উদাহরণস্বরূপ মাইকেল মধুসূদন দত্তের “মেঘনাদ বধ” কাব্যের কথা বলা যেতে পারে। যেখানে দশানন মোটেই খলনায়ক নন। বরং রামচন্দ্রই লঙ্কায় অনুপ্রবেশকারী অপশক্তিরূপে বর্ণিত।

বাংলা তথা ভারতবর্ষ সে সময় ঔপনিবেশিক ব্রিটিশ সিংহের পদানত। অন্যদিকে মাইকেলকে অনেকেই এক বিরুদ্ধবাদী মনোভাবের ব্যাক্তি হিসেবেই জানেন। মূলতঃ এ দুই কারণেই, মনে করা হয়, রাবণকে মাইকেল রামের থেকে এগিয়ে রেখেছেন।

ধারণাটি আংশিক সত্য। মাইকেলই শুধু নন, পুরাকালের বহু মুনিঋষি পর্যন্ত রাবণের বেশ কিছু সদগুণ তালপাতায় লিপিবদ্ধ করে গিয়েছেন। এমনকি খোদ বাল্মিকী রামায়ণও! সেখানে পর্যন্ত দশগ্রীবকে এক কামুক, লোভী রাজার পাশাপাশি মহাজ্ঞানী ব্রাহ্মণ হিসেবে প্রকাশ করা হয়েছে। এই জ্ঞানের নিদর্শন স্বরূপ মৃত্যুশয্যায় রাবণ বেশ কিছু উপদেশ রাম-লক্ষ্মণকে দিয়ে যান। বলা হয়, এমনকি আজকের দিনেও সেসব মেনে চললে উন্নতি অবশ্যম্ভাবী। আজ দশহরার দিনে এমনই তিনটি ঝালিয়ে নেওয়ার পালা—

(১) কোনটা শুভ আর কোনটা অশুভ, তা নিয়ে বেশি চিন্তাভাবনার দরকার নেই। আমাদের অন্তর যদি শুদ্ধ থাকে, সেক্ষেত্রে অশুভ প্রভাব অনায়াসেই কাটানো সম্ভব।
(২) ক্ষমতাই এ জগৎ সংসারের সব কিছুর মূলে। ক্ষমতার জোরে সব পাওয়া সম্ভব।
(৩) রাবণ কখনও কোনও শত্রুকেই তুচ্ছজ্ঞান করতেন না। তাঁর মতে, শত্রু যতই ক্ষুদ্র হোক, যে কোনও সময় বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।

Check Also

মুসলিম মহিলার হাতে শক্তির দেবীর আরাধনা, কালীপুজো ঘিরে এগাঁয়ে উন্মাদনা তুঙ্গে

এক মুসলিম মহিলার হাতে পূজিত হন মা কালী। তাঁর হাতেই এপুজোর শুরু। বছরের পর বছর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.