Thursday , February 9 2023

জীবনের সব বাধা কাটবে গণেশ আরাধনায়! নিয়ম মেনে পালন করুন সংকষ্টি চতুর্থী !

আপনি কি ভগবান গণেশের ভক্ত ? তাহলে আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন হল ১৭ জুলাই । কারণ এই দিন রয়েছে সংকষ্টি চতুর্থী। প্রতিমাসেই এই চতুর্থী আসে এবং প্রত্যেকটির আলাদা করে একটি করে নাম থাকে। এর মধ্যে বিশেষ হল অঙ্গারকী চতুর্থী। এই চতুর্থী পড়ে মঙ্গলবার। হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, প্রতিমাসের পূর্ণিমার ঠিক চার দিন পরে পালন করা হয় সংকষ্টি চতুর্থী।

এইদিন সুফল পেতে এবং আপনার মনে ইচ্ছা পূরণ করতে গণেশের কাছে প্রার্থনা করতে পারেন। সারাদিন উপবাস রেখে রাত্রিতে চাঁদ দেখে গণেশের কাছে প্রার্থনা করে তবেই উপবাস ভঙ্গ করবেন। অনেকেই আছেন যারা এই বিশেষ নিষ্ঠা সহকারে কঠোরভাবে সমস্ত নিয়ম পালন করে থাকেন।

এই দিন খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে স্নান করে শুদ্ধ বসনে ভগবান গণেশকে স্নান করান। তারপর তাঁর উদ্দেশ্যে নতুন বস্ত্র অর্পণ করুন। ভগবান গণেশের ভোগে রাখুন ফল এবং মোদক। তাঁকে সাজান তিলক আর ফুল দিয়ে। তারপর গণেশ মন্ত্র পাঠ করে আরতি করে পুজো সম্পন্ন করুন।

এই দিন সূর্যদেবকে অর্ঘ্য নিবেদন করতে ভুলবেন না। মদ এবং ধূমপান থেকে একেবারেই দূরে থাকবেন। ধর্মীয়ভাবে উপবাসের সমস্ত নিয়ম পালন করবেন। পারলে অসহায়দের সামর্থ অনুযায়ী দান করুন। উপবাস ভঙ্গের সময় ফল, দুধ কিংবা ব্রতের জন্য রাখা খাবার খেতে পারেন।

শাস্ত্র মতে সংসদের সুখ সমৃদ্ধি ফিরে পাওয়ার জন্য গণেশের পুজো করলে ভালো ফল লাভ করা যায়। অনেকেই বাড়িতে ভগবান গণেশের মূর্তি প্রতিষ্ঠা করেন। বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থে গণেশ সংক্রান্ত প্রচুর পৌরাণিক উপাখ্যান পাওয়া যায় । নানান উৎসব, অনুষ্ঠান, বিভিন্ন শুভকার্যের শুরুতেই গণেশ পুজো করা হয়ে থাকে। তাঁকে মনে করা হয় বিঘ্ননাশকারী, বুদ্ধি এবং জ্ঞানের দেবতা।

২০২২ এর জুলাই মাসে গজানন সংকষ্টি চতুর্থী শুরু হয়েছে ১৬ জুলাই শনিবার দুপুর ১ টা ২৭ মিনিটে। এই তিথি শেষ হবে ১৭ ই জুলাই রবিবার সকাল ১০ টা ৪৯ মিনিটে। এই চতুর্থীর উপবাস এবং ব্রত পালন করা করা হবে ১৭ই জুলাই, রবিবার।

Check Also

মুসলিম মহিলার হাতে শক্তির দেবীর আরাধনা, কালীপুজো ঘিরে এগাঁয়ে উন্মাদনা তুঙ্গে

এক মুসলিম মহিলার হাতে পূজিত হন মা কালী। তাঁর হাতেই এপুজোর শুরু। বছরের পর বছর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.