Friday , August 12 2022

ঘটের ঘনঘটা : সুফল পেতে সহজ নিয়ম মেনেই স্থাপন করুন

ঢাকের কাঠি পড়ল বলে, পুজোর কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে। একটা করে দিন অতিবাহিত হচ্ছে আর পরিবেশ পরিবর্তন হচ্ছে। একদিকে শিউলির সুবাস আর অন্যদিকে হালকা হালকা ঠাণ্ডা অনুভূতি। সব মিলিয়ে এক অনবদ্য আমেজ। দেবী মায়ের আরাধনা জন্য অনেক নিয়ম কানুন থাকে, তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হলো ঘট স্থাপন।

• ভগবানের নিরাকার স্বরূপ হল ঘট

আসলে ঘট কিন্তু কোনো দেবী বা দেবতার মূর্তি নয়। যেহেতু প্রতিমা একজন শিল্পী নির্মাণ করেন সেক্ষেত্রে তাঁর কল্পনা ও চেতনার ছাপ থেকে যায়। তাই হিন্দু ধর্মের সাকার ভগবান রূপে প্রতিমা এবং নিরাকার ভগবানের স্বরূপে ঘটকে আরাধনা করা হয়। যদিও ঘট নিরাকার স্বরূপ হলেও মাঝে মাঝে দেব দেবীদের প্রক্সি দিয়ে দেয়।

যখন মূর্তি আনতে দেরি হয়ে যায় অথচ পুজোর শুভ লগ্ন বয়ে যাচ্ছে। তখন পুজোর আসনে অধীর আগ্রহে বসে থাকা পুরোহিত ঘটের উপরে ভগবানকে আহবান করে পুজো করে দেন। ঘটে ঈশ্বরকে আহ্বান করার মানেই সেই ঘটটি তখন মঙ্গলঘট।

• ঘটের কেন পেট মোটা ?

ঘটের পেটমোটা বলে একদমই অবহেলা করবেন না, কারণ এর পিছনেই হয়েছে পৌরাণিক এক কাহিনি। দেবতা এবং অসুরদের সমুদ্রমন্থনের সময় উঠে এসেছিল বিষ। ফলে জগত সংসার মহাপ্রলয়ের সম্মুখীন হয়। সেই পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার করার জন্য এগিয়ে আসেন ভগবান বিশ্বকর্মা। তিনি তৎক্ষণাৎ একটি পানপাত্র তৈরি করেন এবং সেখানে জড়ো করেন সমস্ত বিষ। ব্যাস সেই দিন থেকেই নাকি শুরু ঘটের কথা। তাই কথায় কথায় কম বুদ্ধি সম্পন্ন ব্যক্তিদের ‘বুদ্ধির ঘট’ বলে তাচ্ছিল্য করলেও এই ঘটের ঘনঘটা কিন্তু কম নয়।

• কী কী প্রয়োজন ঘট স্থাপনের জন্য ?

ভগবানের সামনে ঘট স্থাপনের কিছু নিয়ম জেনে নিন।

• প্রথমেই প্রয়োজন মাটি, গঙ্গা মাটি হলে ভালো না হলে পুজো দেওয়া বা পবিত্র কোন পুকুরের মাটি হলেই হবে। তার সাথেই প্রয়োজন ধান এবং পবিত্র জল।

• ঘটের মধ্যে দেওয়ার জন্য দরকার পঞ্চপল্লব। সেই তালিকায় রয়েছে আম, বট, পাকুড়, যজ্ঞ ডুমুর, প্রভৃতি। এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে পল্লব গুলি যেন একত্রে পাঁচটি বা সাতটি থাকে।

• নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী ঘট কিনবেন তবে তা মাটির হতে পারে, পিতলের হতেও পারে বা তামারও হতে পারে। একান্ত উপায় না থাকলে স্টিলের ঘট ব্যবহার করতে পারেন। তবে সব পুজোর ক্ষেত্রে আবার এটি ব্যবহার করা যাবে না। সে ক্ষেত্রে মাটির ঘট শ্রেয়।

• ঘটের উপরে দেওয়ার জন্য প্রয়োজন শীষ যুক্ত কচি ডাব, না পেলে শুধু মাত্র দ্বার ঘটে কাঁঠালি কলাও ব্যবহার করতে পারেন।

• প্রথমেই তেল ঘি এবং সিঁদুরের গুঁড়ো একত্রে মিশিয়ে নিন। তারপর সেই মিশ্রণের ফোঁটা লাগিয়ে দিন প্রত্যেক পল্লবে। পারলে ডাবের গায়ে অঙ্কন করুন স্বস্তিক চিহ্ন। ডাবের উপরে রাখুন একটি নতুন গামছা।

• চারদিকে চারটি তীর কাঠি পুঁতুন। তীর কাঠি বানানোর জন্য প্রয়োজন বাঁশের কঞ্চি এবং তালপাতা। কাঠি গুলিতে বেঁধে দিন লাল ধাগা।

Check Also

এবারে জন্মাষ্টমী দুই দিন ধরে পালিত হবে, কোন দিন উপোস করা বেশি ভালো হবে !

Janmashtami 2022 date: হিন্দু ধর্মে কৃষ্ণ জন্মাষ্টমীর অনেক গুরুত্ব রয়েছে। ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মদিন কৃষ্ণ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.