Tuesday , July 5 2022

গবে’ষণা জা’নাচ্ছে; ঘু’ম হতে দেরি করে ওঠা ব্য’ক্তিরাই সবচেয়ে বেশি বু’দ্ধি’মান হয়

গবে’ষণা জানাচ্ছে; ঘুম হতে দেরি করে ওঠা ব্যক্তিরাই – কি আপনি কি দেরি করে ঘুৃম হতে ওঠেন? তাহলে আপনিই সবচেয়ে বেশি বু্দ্ধিমান মানুষ। অবাক হলেন এই কথাটি শুনে? একটি জনপ্রিয় ফেসবুক পেজে একবার একটা পো’স্টে দেখা গিয়েছিল প্রেমে পড়ার চেয়ে ঘুমিয়ে পড়া ঢেড় ভালো। আসলে তা কতটুকু সত্য তা আমরা জানি না।

ঘুম যে মানুষের অত্যা’বশকীয় দৈনন্দিন কাজ তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। এই ঘুমকে ঘিরে মানুষের মা’থাব্য’থার অন্ত নেই। কেউবা অধিকা সময় ধরে ঘুমান কেউবা আবার নিদ্রহীনতায় ভূ’গে। ওষুধ খেয়েও যেন কিছুতেই চোখে ঘুম আসে না। মানে ইনসোমেনিয়াতে ভু’গেন।

অনেকে রয়েছেন রাতে বি’ছানায় শরীর দেওয়া মাত্র নাক ডেকে গড় গড় করে ঘুমাচ্ছেন। অবার অনেকে রয়েছেন কিছুতেই সহজে সময় মত রাতে ঘুম আসতে চায় না। সকালে ওঠার তারা প্রায় প্রতিটি মাানুষেরই থাকে। সকালবেলা অফিস, স্কুল, কলেজসহ কর্মস্থলে যাওয়ার তাড়া থাকে। ঘড়ির অ্যা’লার্মে কিছুতেই যেন ঘুম ভাঙ্গে না।

রোজ দেরি ঘুম হতে ওঠা নিত্যদিনের একটা সমস্যা হয়েছে অনেকের। কিন্তু আপনি জানলে অবাক হবেন যে, গবেষকরা আবার এই সম’স্যাকে ইতিবাচক ভাবেই দেখছেন। দেরিতে ঘুুম হতে ওঠা নিয়ে চিন্তার কোন কারণ নেই। বরং তা শরীর এবং মা’নসিক দিক দিয়েও ভালো এমনটাই দা’বি করেছেন একদল গবে’ষক।

সম্প্রতি আমেরিকার গবেষক দলের প্রধান সাতোশি কানা’জাওয়া ও কাজা পেরিনা নামের এই দুই বিজ্ঞানী গবে’ষণার দ্বারা এমন ত’থ্য পেয়েছেন। তাঁদের মতে যারা দেরি করে ঘুম হতে ওঠেন তার জীবনে অনেকাংশে সৃজ’নশীল এবং স্বাধীনচেতা মানুষ হয়ে থাকেন।

এছাড়াও তাদের বো’ধবু’দ্ধি এবং চি’ন্তাভাবনা অন্যদের থেকে অনেকাংশে ইতি’বা’চক এবং অনেকটাই উন্নত মানসি’কতার হয়ে থাকে। তাদের ব্যক্তিত্ব হয়ে থাকে উন্ন ধরণের। তবে তারা জানিয়েছেন যে, প্রকৃতির সাথে তাল মিলিয়ে চলাই ভালো।

Check Also

রান্না বা ভাঁজার পুরাতন তেল পরিশুদ্ধ করার ঘরোয়া পদ্ধতি!

তেলে (oil) ভাঁজার পর তেলে (oil) তলানীতে অনেক সময় পোড়া অংশ পড়ে আবার অনেক সময় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.