Thursday , February 9 2023

কিং কোবরার অত্যাচারে আতঙ্কিত গ্রামবাসি।প্রতিদিন শিকার হচ্ছে মুরগির ছানা।পাল্টা জবাবে মাঠে নামলো মোরগ।শুরু হলো তুমুল লড়াই।

শঙ্খচূড় বা রাজ গোখরা হচ্ছে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ বিষধর সাপ।যার দৈর্ঘ্য সর্বোচ্চ ৫.৬ মিটার (১৮.৫ ফুট) পর্যন্ত হতে পারে। এটি মূলত সম্পূর্ণ দক্ষিণ এশিয়ার বনাঞ্চল জুড়ে দেখা যায়। ইংরেজি নামে কোবরা শব্দটি থাকলেও এটি কোবরা বা গোখরা।

কুকুর কার্নিভোরা (Carnivora) অর্থাৎ শ্বাপদ বর্গ ভুক্ত এক প্রকারের মাংসাশী স্তন্যপায়ী প্রাণী। প্রায় ১৫ হাজার বছর আগে একপ্রকার নেকড়ে মানুষের শিকারের সঙ্গী হওয়ার মাধ্যমে গৃহপালিত পশুতে পরিণত হয়।তবে কারও কারও মতে কুকুর মানুষের বশে আসে ১০০,০০০ বছর আগে।খাঁচার মধ্যে থেকে অনবরত ডেকে চলেছে মুরগির দল। কিছুতেই থামছে না চিৎকার।

ঘটনা কী প্রথমে তা ঠাহর করতে পারেননি বাড়ির লোকজন। খাঁচার কাছে যেতেই চোখ কপালে উঠে যায় তাঁদের। দেখা যায় খাঁচার মধ্যে রয়েছে আস্ত একটা কিং কোবরা।একটি গ্রামের ভিতরের একটি জঙ্গলে বিষধর কয়েকটি কিং কোবরা সাপ বসবাস করত।এগুলো প্রথমে কোন কিছুকে আক্রমন করত না।

কিন্তু প্রায় দিন পর দেখা যাচ্ছে যখন কোন দিকে শিকার পাচ্ছে না ক্ষুধার তাড়নায় বাধ্য হয়ে বাড়িঘরে আক্রমণ শুরু করে।এবং ছোট ছোট মুরগির ছানা গুলোকে শিকার করে নিয়ে যায়।এসব শিকার দিন দিন তাদের বাড়তেই থাকে। গ্রামের লোকজন তাঁর প্রতি অনেকটাই অসন্তুষ্ট হয়ে পড়ে।কিন্তু তাদের কিছুই করার ছিল না।কারণ এটি এমন একটি বিষধর সাপ বনের যে কোন প্রাণীকে নিমিষেই শেষ করে দিতে পারে

কিন্তু অদ্ভুত একটি ব্যাপার হলো তার মোকাবেলা করার জন্য কোন মানুষ আসেনি। কিন্তু একটি মোরগ তার মোকাবেলা করার জন্য ঠিকই চলে আসে।মোরগটি সাহস দেখিয়ে কিং কোবরা সাপ কে ঝাপ দেয় তখন তাদের মধ্যে শুরু হল তুমুল লড়াই এবং সেই সাপটি মোরগটির কাছে পরাজিত হয় সেই জঙ্গল ছাড়তে বাধ্য হল।তাই বলা যেতেই পারে কোন বড় কিছু দেখে ভয় পাওয়ার কিছুই নেই।সাহস বুদ্ধি দিয়ে সবকিছুকেই পরাজিত করা যায়।

style=”font-weight: 400;”>বস্তার ভিতর ঢুকেও ফনা তুলছিল বিষধরটি। প্রবল জোরে ফোঁসফোঁস শব্দ করে চেষ্টা করছিল ছোবল মারার। সাপ দেখতে ভিড়ও জমে যায় গোটা এলাকায়। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিকেলে ময়নাগুড়ি (Maynaguri) রামশাই অঞ্চলের চড়াই মহল গ্রামের বাসিন্দা মন্টু ওড়াওয়ের বাড়ির মুরগির খাঁচায় মুরগি খেতে ঢুকে যায় একটি বিশালাকার কিং কোবরা সাপ। তখনই সাপ দেখে মুরগি গুলি চিৎকার শুরু করে দেয়।

মুরগিগুলির লাগাতার ডাক শুনে খাঁচার কাছে যেতেই বাড়ির লোকেরা দেখেন বিশাল আকৃতির একটি কিং কোবরা সাপ খাঁচার ভেতর ঢুকে বসে আছে। দৃশ্য দেখে আঁতকে ওঠেন তাঁরা। খবর যায় ময়নাগুড়ি পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের সম্পাদক নন্দু রায়ের কাছে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন খবর যায় বন দফতরেও। বন দফতরের কর্মীরাও ছুটে আসেন।

এরপর প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টার পর বিষধরটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয় ময়নাগুড়ি পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের সদস্যরা।উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছিলেন বন দফতরের কর্মীরাও।স্থানিয়রা জানান কিং কোবরাটি আনুমানিক ১৪ ফুট লম্বা। এত বড় মাপের কিং কোবরা এর আগে তাঁরা উদ্ধার করেননি বলেও জানিয়েছে। উদ্ধারের পর সাপটিকে রামশাই রেঞ্জ অফিসের কর্মীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বন দফতর সূত্রে খবর, সাপটির প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর সেটিকে নিরাপদ পরিবেশে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

Check Also

স্যুট-সালোয়ার পরে খোলা রাস্তায় নাচলেন একটি ছোট্ট মেয়ে, লোকেরা প্রচুর হাততালি দিল

বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া আজকের প্রজন্মের কাছে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিনোদন মাধ্যম হয়ে উঠেছে। এই নেটদুনিয়ার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.