Saturday , January 28 2023

এত বড়ো গায়ক হয়েও নেই কোনো অহংকার! নিজের শহর জিয়াগঞ্জের ছাত্রীদের জন্য বিনামূল্যে ইংরেজী ক্লাস খুলছেন অরিজিৎ সিং

গায়ক অরিজিৎ সিং। যাকে একনামে সবাই চেনে। গানের জাদুতে মুগ্ধ আট থেকে আশি সকলেই। মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জ থেকে নিজের কণ্ঠস্বরের যাদুতে,আজ তিনি পৌঁছে গিয়েছেন মুম্বাই থেকে বিশ্ব। মুর্শিদাবাদের এই ছেলেটি এত বড় সেলিব্রেটি হয়ে উঠলেও তার মধ্যে সেলিব্রেটি সুলভ আচরণ সেই ভাবে,দেখা যায় না বললেই চলে। বরং তিনি সবসময় মাটির কাছাকাছি থাকতে পছন্দ করেণ। যে কারণে তাকে তার অনুরাগীরা মাটির ছেলে বলেই সম্মোধিত করে থাকেন।

বছরের বিভিন্ন সময় কাজের কারণে তাকে মুম্বাই অথবা অন্য কোথাও থাকতে হলেও সুযোগ পেলেই তিনি ছুটে আসেন মুর্শিদাবাদে। নিজের প্রানের শহর জিয়াগঞ্জে একটি স্কুটি নিয়ে ছুটে বেড়ান আনাচে কানাচে।বলাই বাহুল্য এলাকার টানে অধিকাংশ সময় তাকে এখানেই থাকতে দেখা যায়। এই অরিজিৎ সিং এবার পা রাখলেন জনসেবায়। মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জের ছেলে মেয়েদের জন্য তিনি এমন একটি উদ্যোগ নিতে চলেছেন যা শুনলে আপনিও গর্বিত হয়ে উঠবেন। অরিজিৎ সিং হঠাৎ হাজির হন জিয়াগঞ্জের শংকর মন্ডলের নার্সিং কলেজে। একেবারে সাদামাটা পোশাকে সেখানে তাকে হাজির হতে দেখা যায়। আচমকা তাকে হাজির হতে দেখে স্বাভাবিকভাবেই নার্সিং কলেজের ওই ছাত্রীরা আপ্লুত হয়ে যান। তবে এইভাবে হঠাৎ তার সেখানে উপস্থিত হওয়ার কারণ কিছুক্ষণের মধ্যেই সামনে আসে। চোখের সামনে অরিজিৎ সিং কে দেখে কেও আপ্লুত হন, কেও বা হাত মিলাতে চান তার সাথে। তবে সবাই কে হাত দেখিয়ে শান্ত করার চেষ্টা করতে দেখা যায়। প্রীয় গায়ক কে চোখের সামনে পেয়ে আবেগ তাড়িত হয়ে পড়েন অনেকেই।

জানা গিয়েছে, অরিজিৎ সিং তার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার মাধ্যমে এলাকায় একটি ইংরেজি কোচিং সেন্টার খুলতে চান। সেই কোচিং সেন্টার থেকে বিনামূল্যে এলাকার পড়ুয়াদের ইংরেজি কোচিং দেওয়া হবে। এই কোচিং সেন্টার খোলার জন্য আটটি ঘরের প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে ওই নার্সিং কলেজে ঘরের ব্যবস্থা করা যায় কিনা তা তিনি খতিয়ে দেখতে গিয়েছিলেন। নার্সিং কলেজের মালিক শংকর মন্ডল জানিয়েছেন, থানা থেকে কিছুটা দূরে নার্সিং কলেজে সকাল ছয়টা থেকে সকাল আটটা এবং বিকাল পাঁচটা থেকে রাত্রি আটটা পর্যন্ত কোচিং সেন্টার চালানোর জন্য অরিজিৎ সিং অনুমতি চেয়ে আবেদন জানিয়েছিলেন। ওই সময় নার্সিংয়ের কোন ক্লাস হয় না, যে কারণে এই প্রস্তাবে রাজি হয়েছি। মনিটর দেওয়া অরিজিৎ সিং এর ওই বড় হলঘর পছন্দ হয়েছে। আগামী দিনে হয়তো ক্লাস শুরু হবে।

তবে এই প্রথম নয়। কোভিড মহামারি পরিস্থিতিতে একাধিক কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন অরিজিৎ সিং ।তার নিজস্ব সংগঠন কোভিড পরিস্থিতিতে অক্সিজেন সিলিন্ডার দেওয়া হোক বা সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানো অনেক কাজ করেছেন। ফের আবার জনদরদী ভাব মুর্তি দেখা গেল অরিজিৎ সিং কে। এর আগে নিজের প্রিয় স্কুলে দিদিমনির পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করতে দেখা যায়। তবে অরিজিৎ সিং এর এই ভুমিকা কে সাধুবাদ জানিয়েছেন জিয়াগঞ্জ সদরবাসী। সম্প্রতি এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে ফেসবুকের, The Bong Untold নামের অ্যাকাউন্ট থেকে মাত্র তিন দিন আগে। এর মধ্যেই ভিডিওটি কেউ লক্ষ লক্ষ মানুষ দেখেছেন আর লাইক করেছেন ১০৫ হাজার মানুষ। এদিকে ভিডিওটিতে ২.৩ হাজারটা কমেন্ট এসেছে এবং ৪.২ হাজার মানুষ ভিডিওটিকে চারিদিকে শেয়ার করেছেন।

Check Also

মাকে বাঁচাতে নিজের কিডনি বিক্রি করতে চান মেহেদী ! ভিডিওটি দেখলে চোখের জল আটকাতে পারবেন না !

মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে ঢাকার পথে পথে ঘুরছেন শেরপুরের তরুণ মেহেদী হাসান হিমেল। নিজের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.