Tuesday , July 5 2022

অবিকল মানুষের মত সুরেলা কণ্ঠে গান গাইছে ছোট্ট টিয়া পাখি, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

ককাটিয়েল পাখি সাধারণত কাকাতুয়া পরিবারের অন্তর্ভুক্ত। বন্য প্রজাতি হিসেবে একে অস্ট্রেলিয়া ছাড়া কোথাও পাওয়া না গেলেও বিশ্বব্যাপি এটি খাঁচায় পোষা গৃহপালিত পাখি হিসেবে পালিত হয়। খুব সহজে বাচ্চা প্রধান এবং বাড়ির সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার কারণে ককাটিয়েল পাখি অনেকেই পুষে থাকেন। আগে এদের ঝুঁটিওয়ালা তোতা বা ছোট কাকাতুয়া হিসেবে বিবেচনা করা হতো।

ককাটিয়েলের উৎপত্তি ও বিচরণ অস্ট্রেলিয়ায়। অস্ট্রেলীয় জলাভূমি, বুনো ঝোপঝাড় ও গুল্মভুমিগুলোতে এরা বসবাস করে। ১৭৯৩ সালে সর্বপ্রথম স্কটিশ লেখক ও প্রকৃতিবিদ রবার্ট কের ককাটিয়েলের দ্বিপদ নামকরণ করেন। খাঁচাবন্দি অবস্থায় ককাটিয়েল সাধারণত ১৬ থেকে ২৫ বছর বাঁচে। খাদ্য সংস্থান এবং পরিবেশের উপর নির্ভর করে এদের বেঁচে থাকার বিষয়টি।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে এমনও দেখা গিয়েছে যে, ককাটিয়েল ১০ থেকে ১৫ বাঁচে। পুরুষ ককাটিয়েল পাখির ক্ষেত্রে এদের পাখা ও লেজের পালকের নিচের দিকের হলুদ বা হলুদাভ অথবা সাদা বা সাদাভ রেখা, ফোঁটা ও দাগগুলো অদৃশ্য হয়ে যায়। ঝুঁটি ও গলার ধূসর পালকগুলো পরিবর্তিত হয়ে গাঢ় হলুদ রঙ্গের পালকে পরিণত হয়।

এসময় গলার কমলা দাগটি আরো উজ্জ্বল ও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। স্ত্রী ককাটিয়েল পাখির ক্ষেত্রে মুখ ও ঝুঁটির পালক সাধারণত ধূসরই থাকে। তবে এদের গলায়ও কমলা দাগ থেকে যায়। এরা আবার মানুষের মত গান গাইতে ও পারে। তেমনি একটি ভিডিও সম্প্রতিক সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটিতে গান গাইছে দেখা গিয়েছে ককাটিয়েল পাখিকে। হুবহু মানুষের মতো করে গান গাইছে সে।

তাও আবার ইংরেজি গান। গান গাইতে গাইতে মাঝে মাঝে থেমে গেলেও তার গানে কিন্তু বিন্দুমাত্র ভুল হচ্ছে না। মন দিয়ে গান গাইছে সে। সাম্প্রতিক সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে, একটি বাড়ির মধ্যে বসে রয়েছে একটি সুন্দর ককাটিয়েল পাখি। ধূসর রঙের গা আর হালকা সবুজ এবং মুখমন্ডলে গালের দুপাশে কমলা আভা। বেশ দেখতে সুন্দর সে।

ইংরেজিতে গান গাইতে দেখা গেল এদিনের এই সুন্দর ছোট্ট ককাটিয়েল পাখিটিকে। ঈশ্বরের সৃষ্টি পৃথিবীতে কোন কিছুই যেন অসম্ভব নয়। তারই নিদর্শন মিলল এদিন। এতদিন জানা গিয়েছিল টিয়া পাখি মানুষের মত কথা বলতে পারে, এখন দেখা গেল যে সুন্দর ককাটিয়েল পাখির হুবহু মানুষের মতো করে গান গাইতে পারে। তাও আবার ইংরেজি গান গাইতে দেখা গিয়েছে তাকে।

যদিও এদের গলা আর মানুষের গলার মধ্যে অনেক পার্থক্য।কিন্তু তারা কিছু না বুঝলেও পুরোটা নকল করে নিতে বেশ ভালোই পারে। কখনো কখনো দেখা যায় শালিক পাখিও কথা বলছে হুবহু মানুষের মত। ইতিমধ্যে আড়াই লাখেরও বেশি দর্শক এই সুন্দর ককাটিয়েল পাখির গান গাওয়ার ভিডিওটি দেখে নিয়েছেন। ককাটিয়েল পাখির কন্ঠে হিন্দি গান শুনে হতবাক হয়ে গিয়েছেন সকলেই।

 

Check Also

কোলে সন্তানকে নিয়ে ব্যস্ত রাস্তা সামলাচ্ছেন মহিলা ট্রাফিক

সন্তানকে কোলে নিয়ে গুরুতর দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। যে ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ার ময়দানে আসা মাত্রই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.